গত অক্টোবর মাসেই ধর্ষণ-১৮৩

প্রকাশিত: ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ৫, ২০১৯

জাগ্রত বাংলাদেশ
নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ জানিয়েছে, গত অক্টোবর মাসেই দেশে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ১৮৩টি এবং নির্যাতনের শিকার হয়েছে আরও ৪৬৫ জন নারী ও কন্যাশিশু। গতকাল সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে সংস্থাটি। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের লিগ্যাল এইড উপপরিষদ১৪টিদৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসের এই প্রতিবেদন তৈরি করে।
এসব প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন ২৩ জন, ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে ৭ জনকে। আর ধর্ষণের কারণে আত্মহত্যা করেছেন আরও ২জন। এ ছাড়া ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে ৩০ জনকে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছে ৪ জন, যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১৭ জন। এসিড দগ্ধের শিকার হয়েছে ২ জন, অগ্নিদগ্ধের শিকার হয়েছে ১ জন। অপহরণের ঘটনা ঘটেছে মোট ১৫টি। নারী ও শিশু পাচার করা হয়েছে ৩ জন। পতিতালয়ে বিক্রি করা হয়েছে ২ জনকে। এছাড়াও বিভিন্ন কারণে ৪৫ জন নারী ও কন্যাশিশুকে হত্যা করা হয়েছে। আর ৭ জনকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। যৌতুকের জন্য হত্যা ও নির্যাতনের শিকার হয়েছে ৫ জন। এর মধ্যে হত্যা করা হয়েছে ২ জনকে। উত্ত্যক্ত করা হয়েছে ৯ জনকে। বিভিন্ন নির্যাতনের কারণে ৯ জন আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছেন। আত্মহত্যায় প্ররোচনার শিকার হয়েছে ২ জন।

এছাড়াও আরও ৫৩ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বাল্যবিয়ে সংক্রান্ত ঘটনা ঘটেছে ৩৬টি। বাল্যবিয়ের চেষ্টা হয়েছে ৩১টি। শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে ১৯ জনকে। বেআইনি ফতোয়ার ঘটনা ঘটেছে ২টি। পুলিশি নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১ জন। ২০টি অন্য নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।