ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে ৩ পুলিশসহ ৫ জনকে গণপিটুনি

প্রকাশিত: ৬:৩৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৯, ২০১৯

জাগ্রত বাংলাদেশ

ডেস্ক রিপোর্ট : টাঙ্গাইলের মির্জাপুর ও সখীপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী হতিয়া রাজাবাড়ি গালর্স স্কুল বাজার এলাকায় ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে ৩ পুলিশসহ ৫ জনকে গণপিটুনি দিয়েছে স্থানীয় জনতা।

বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। গণধোলাইয়ের শিকার পুলিশের ৩ সদস্য হলেন- বাঁশতৈল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই রিয়াজুল ইসলাম, কনস্টেবল রাসেল ও গোপাল সাহা স্বপন ও তাদের ২ সোর্স। পরে মির্জাপুর ও সখীপুর থানা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও হতিয়া রাজাবাড়ি এলাকার বাসিন্দা আলী হোসেন ও নাসির জানান, বাঁশতৈল ফাঁড়ির পুলিশের সোর্স হাসানসহ ২ যুবক ওই বাজারে বজলুর রশিদ নামে এক যুবককে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করে। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ওই ২ সোর্স বাঁশতৈল পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশকে জানায়।

সোর্সের মাধ্যেমে খবর পেয়ে সিএনজি নিয়ে ওই ৩ পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সিগারেট এর প্যাকেটের ভিতর ইয়াবা দিয়ে স্থানীয় ২ যুবককে মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে ফাঁসানোর চেষ্টা করে। এ দৃশ্য দেখে আশপাশের লোকজন সিএনজি ঘেরাও করে ৩ পুলিশ ও ২ সোর্সকে গণধোলাই দেয়।

পরে বাঁশতৈল ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. সাইফুল ইসলাম এবং সখীপুর থানার ওসি (তদন্ত) লুৎফুল কবিরসহ বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই ৫ জনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার (মির্জাপুর সার্কেল) দীপংকর ঘোষ ও মির্জাপুর থানার ওসি মো. সায়েদুর রহমান জানান, ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনা প্রমাণিত হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।