সেন্টমার্টিনে মালয়েশিয়াগামী ট্রলারডুবি, ১৪ রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত: 1:18 PM, February 11, 2020

জাগ্রত বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: সেন্টমার্টিন উপকূলে মালয়েশিয়াগামী  ট্রলার উল্টে এ পর্যন্ত ১৪ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড। নিহতদের মধ্যে নারী ও শিশুও রয়েছে। তাদের বিস্তারিত পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। ধারনা করা হচ্ছে নিহতরা সকলেই রোহিঙ্গা।

আজ মঙ্গলবার ভোরে চেড়াঁদিয়া পশ্চিম বীচে পাথরের সাথে ধাক্কা লেগে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ইতিমধ্যে  জীবিত উদ্ধার হয়েছে ৬৫ জন ট্রলার যাত্রী। এদের মধ্যে আহতদের চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে।

জানা যায়, গেলো রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের কাছাকাছি টেকনাফের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে ৪টি ট্রলার দিয়ে শত শত রোহিঙ্গা নারী শিশু ও পুরুষ সাগরপথে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য রওয়া দেয়। এরমধ্যে ভোরে অন্য ৩টি ট্রলার চলে গেলেও একটি ট্রলার সেন্টমার্টিন ছেড়াঁদিপের পশ্চিমে পাথরের সাথে ধাক্কা লেগে উল্টে যায়। এতেই  হতাহতের ঘটনা ঘটে। এখনো নিহত বা জীবিত উদ্ধার হওয়াদেও বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে ট্রলার থাকা যাত্রীরা কয়েকজন ছাড়া সকলেই রোহিঙ্গা বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

উদ্ধার হওয়াদের মধ্যে একজন জানান, ট্রলারের ভিতরের স্টোর রুমেও বেশকজন সহযাত্রী ছিলেন। তারা হয়তো ওখানেই মারা পড়েছে।

সেন্টমার্টিন্স কোস্ট গার্ড ষ্টেশন কমান্ডার লে. কমান্ডার নাইম উল হক জানান, আজ মঙ্গলবার ভোরে মালয়েশিয়াগামী ট্রলারটি পশ্চিমে চেড়াঁদিয়া এলাকায় পাথরের সাথে ধাক্কা লেগে  ১২০ জন যাত্রী নিয়ে ডুবে যায়। খবর পেয়ে কোস্টগার্ডের দুটি উদ্ধার যান ঘটনাস্থলে গিয়ে এ পর্যন্ত ১৪ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে ৬৫ জনকে। যারা কি না অবৈধভাবে ট্রলার যোগে মালয়েশিয়া পাড়ি জমাচ্ছিলেন। এদেও মধ্যে আহতদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হচ্ছে।   মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।